সাভারে দিনের বেলায় ডাকাতি – আটক ২

source_logo
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on whatsapp

সাভারে দিনের বেলায় ডাকাতি – আটক ২

কখনও বিদ্যুত অফিসের লোক আবার কখনও বিভিন্ন সেবামূলক প্রতিষ্ঠানের কর্মী পরিচয়ে ডাকাতি করতেন তারা। কপাল মন্দ অবশেষে এ চক্রের দুইজনকে হতে নাতে আটক কারা হয়েছে। গতকাল রবিবার বেলা ১১টার দিকে পৌরসভার ৭ নং ওয়ার্ডের ইমান্দীপুরে আব্দুল মোতালেবের বাড়িতে ডাকাতিকালে আটক হন তারা। দুই জনকে আটক করতে পারলেও ডাকাত দলের বাকি সদস্যরা পালিয়ে যায়। পরে উত্তেজিত জনতা দুই ডাকাতকে গণপিটুনি দিয়ে রশি দিয়ে খুঁটির সাথে বেঁধে রাখে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে দুই ডাকাতকে আটক করে সাভার মডেল থানা পুলিশ। দিনের বেলায় ডাকাতি হওয়ার ঘটনায় ওই এলাকার মানুষের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

আটক ডাকাত সদস্য অপু সাভার পৌর এলাকার ইমান্দিপুরের বাসিন্দা গগন মিয়ার ছেলে। অপরজনের নাম সুমন মিয়া তার বাড়ি বাহ্মাণবাড়িয়া বলে জানাগেছে।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুর রহমান ও সাবেক কাউন্সিলর আব্বাস আলী ঘটনাস্থলে গিয়ে উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করেন এবং ডাকাত সদস্যদের পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন।

বাড়ির মালিক আব্দুল মোতালেবের মা রহিমা বেগম জানান, আনুমানিক সকাল ১১টার দিকে মুসুলধারে বৃষ্টি হচ্ছিলো ওই সময় তার মাদরাসা পড়ুয়া নাতি বাসায় আসে। তার সাথে দুই জন ব্যক্তি গেইট দিয়ে পিছনে আসে হাতে ব্যাগ নিয়ে। প্রথমে তার নাতি বাড়ির ভিতরে নিমার্ণ কাজ চলায় কাজের লোক ভেবে কোনকিছু জানতে চায়নি। পরে তার সাথে ডাকাত দলের সদস্যরা ঘরে প্রবেশ করতে গেলে ওই বৃদ্ধমহিলা তাদের পরিচয় জানতে চাওয়ার সাথে সাথে তার মুখ চেপে ধরে একজন এবং তাদের সাথে পিছনে থাকা আরো ৫/৬জন মুহুর্তের মধ্যে ঘরে ঢুকে পরিবারের বাকি সদস্যদের একটি রুমে বন্দী করে রাখে। তার ওড়না দিয়ে হাত বেধে গলায় ধারালো অস্ত্র ঢেকিয়ে নগদ দেড় লক্ষ টাকা ও প্রায় ২৩ ভরি স্বর্ণলাংকার লুট করে ডাকাতরা।

এরপর প্রতিবেশিরা বিষয়টি টের পেয়ে আশেপাশের লোকজন নিয়ে বাড়ির সমনে আসলে ডাকাত দলের দুই সদস্য ছাড়া বাকি সবাই টাকা ও স্বর্ণলাংকারসহ দেওয়াল টপকে পালিয়ে যায়।
৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুর রহমান বলেন, ডাকাত ধরাপরার খবর শুনে ঘটনা স্থলে যাই।

 

Explore More Districts