থানচির ছাত্রী তুমলে ম্রো বাঁচতে চাই

source_logo
Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on whatsapp

বান্দরবানে থানচি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮শ শ্রেনিতে পড়ুয়া মেধাবী ছাত্রী তুমলে ম্রো দীর্ঘদিন থেকে এ্যাপেন্ডিসাইটিস রোগে আক্রান্ত হয়ে বান্দরবানের ইম্যানুয়েল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দ্রুত অপারেশন করার পরমর্শ দিয়েছে। পরিবারের আর্থিক সংকটের কারনে মেধাবী এই ছাত্রীর জীবন সংকটে থাকায় তার পরিবার সমাজের সবার কাছ থেকে অর্থ সহায়তা চেয়ে সহযোগীতা কামনা করেছে।

কঠোর লকডাউনে কর্মহীণ হয়ে পড়া তাঁর পরিবারের অর্থ সংকটে চিকিৎসা করতে না পারায় ঘরে নিয়ে আসার সিন্ধান্ত নিয়েছে তার বড় ভাই রেংহাই ম্রো। পরিবারিকভাবে অর্থ সংকটে চিকিৎসার অভাবে অকালে ঝড়ে যেতে পারে এই ছাত্রী

তুমলে ম্রো বলেন, আমাকে সবাই একটু সহযোগীতা করুন।

তুমলে ম্রো ১৬, পিতা মাংপং ম্রো, মাতা কাইপ্লি ম্রো বয়ক হেডম্যান পাড়া থানচি, বান্দরবানে বাড়ী। সে ২০২১ সালে থানচি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেনিতে অধ্যায়নরত বলে পারিবারিক সূত্রে জানা যায়।

তুমলের বাবা একজন হত দরিদ্র জুম চাষী তিনি জানান, ৩-৪ মাস আগেই আমার মেয়ে পেটে ব্যাথা অনুভব করলে আলসার মনে করে তাঁকে বাড়ীতে ঔষধ সেবন করে চিকিৎসা দিয়ে আসছিলাম। কিন্তু গত ১৪ ই জুন অসম্ভব ব্যাথা অনুভুত হলে দ্রুত থানচি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করি। কর্তব্যরত চিকিৎসক বান্দরবানে রেফার করলে একই দিনে বান্দরবানের ইম্যানুয়েল হাসপাতালে ভর্তি করি। তার শরীরের বিভিন্ন অঙ্গপ্রত্যঙ্গ পরীক্ষা নিরীক্ষার পর রেজাল্ট আসে এ্যাপেন্ডিসাইটিস।

এই-ম্যানুয়েল হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: জ্যোতিময় ম্রো জানান, তাঁকে দ্রুত অপারেশন করতে হবে তা নাহলে জীবন সংকটে পড়তে পারে। তুমলে ম্রো’র পরিবার তার অপারেশনের জন্য অর্থ সহযোগীতা চেয়েছেন।

সহযোগীতা করার জন্য বিকাশ নাম্বার (পারসোনাল) :-০১৮৬৯২৮৯৫৫৬।

Explore More Districts