চকরিয়ায় ভারী বর্ষণে সড়ক ভেঙে পুকুর 

Share on facebook
Share on twitter
Share on email
Share on whatsapp

এম জিয়াবুল হক, চকরিয়া :

বর্ষা মৌসুমের শুরুতে অবিরাম ভারী বর্ষণ পরবর্তী উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের তা-বে চকরিয়ায় গ্রামীণ জনপদের একটি সড়ক ভেঙে পুকুরে পরিণত হয়েছে।

এই অবস্থার কারণে সড়কটি দিয়ে যাতায়াতকারী অন্তত ১২ হাজার বাসিন্দা চরম দুর্ভোগে পড়েছে। সম্প্রতি ভারী বৃষ্টিপাতের প্রভাবে সৃষ্ট পাহাড়ি ঢলের ধাক্কায় উপজেলার হারবাং ইউনিয়নের হারবাং-বারবাকিয়া সংযোগ সড়কটি ভেঙ্গে এমন দৈন্যদশা তৈরী হয়েছে।

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও এলাকাবাসীর কাছ থেকে বিষয়টি জানতে পেরে কয়েকদিন আগে সড়কটি পরিদর্শন করেছেন সংসদসদস্য ও চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ জাফর আলম।

ওইসময় তিনি সড়কটি সংস্কারে ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনিক দপ্তরকে নির্দেশ দিয়েছেন।

বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেছেন হারবাং ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মিরানুল ইসলাম মিরান।

তিনি বলেন, সম্প্রতি  অবিরাম ভারী বর্ষণ পরবর্তী উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের তা-বে হারবাং ইউনিয়নের হারবাং-বারবাকিয়া সংযোগ সড়কটি ভেঙ্গে পুকুরে পরিণত হয়েছে। এই অবস্থার কারণে সড়কটি দিয়ে যাতায়াতকারী অন্তত ১২ হাজার বাসিন্দা চরম দুর্ভোগে পড়েছে।

তিনি বলেন, সড়ক ভেঙ্গে যাওয়ার ঘটনাটি স্থানীয় সাংসদ আলহাজ জাফর আলম, চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ সামসুল তাবরীজ ও উপজেলা এলজিইডির প্রকৌশলী কমল কান্তি পালকে জানানো হয়েছে। কয়েকদিন আগে সাংসদ জাফর আলম ঘটনাস্থল পরিদর্শনও করেছেন। তিনি সড়কটি সংস্কারে উদ্যোগ নিতে এলজিইডির প্রকৌশলীকে নির্দেশনাও দিয়েছেন।

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) চকরিয়া উপজেলা প্রকৌশলী কমল কান্তি পাল বলেন, ভারী বর্ষণ শুরু হবার পর উজান থেকে পাহাড়ি ঢল নামলে প্রচন্ড ধাক্কায় হারবাং ইউনিয়নের হারবাং-বারবাকিয়া সংযোগ সড়কটি ভেঙ্গে যায়। ইতোমধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। সড়কটি দ্রুত মেরামতের জন্য অর্থবরাদ্দ চেয়ে অগ্রাধিকার প্রকল্পের আওতায় নির্বাহী প্রকৌশলীর দপ্তর হয়ে উর্ধ্বতন বিভাগে পত্র পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, অর্থবরাদ্দ নিশ্চিত হবার পরপর আমরা সহসা সড়কটি সংস্কারে কাজ শুরু করবো।

Explore More Districts